শুক্রবার, ১৪ মে ২০২১, ১০:২৭ পূর্বাহ্ন

বিজ্ঞপ্তিঃ
দিনাজপুর থেকে প্রকাশিত সরকারি মিডিয়া তালিকাভুক্ত দৈনিক খবর একদিন পএিকার জন্য খানসামা, হাকিমপুর, ঘোড়াঘাট ও চিরিরবন্দরের জন্য উপজেলা প্রতিনিধি আবশ্যক। মেইল : khaborekdin2012@gmail.com। মোবাইল : 01714910779
সর্বশেষঃ
ফুলবাড়ীতে ঝড়ে উড়ে গেল প্রধান মন্ত্রীর উপহারের ঘরের চাল ফুলবাড়ীতে সড়ক দূর্ঘটনায় চালকসহ আহত ১০ যাত্রী ফুলবাড়ীতে আনসারদের মাঝে ঈদ উপহার বিতরণ বীরগঞ্জে বজ্রপাতে এক নারী নিহত দিনাজপুরে সেন্ট ফিলিপস্ এলামনাই ফোরাম এর উদ্যোগে ঈদ উপহার প্রদান পবিত্র ঈদ-উল-ফিতর উপলক্ষে হুইপ ইকবালুর রহিম এমপির শুভেচ্ছা দিনাজপুরে বিভিন্ন আয়োজনে আন্তর্জাতিক নার্সেস দিবস পালিত ত্যাগের মধ্যে যে আনন্দ আছে ভোগের মধ্যে তা নেই-হুইপ ইকবালুর রহিম বাংলাদেশের উন্নতির পথে বাধা সৃষ্টি করা স্বাধীনতা বিরোধীদের অপপ্রয়াস- এমপি গোপাল দিনাজপুর সরকারী মহিলা কলেজের উদ্যোগে অস্বচ্ছল জনগোষ্ঠীদের মাঝে খাদ্য সহায়তা প্রদান

নাগরপুরে সড়ক দুর্ঘটনায় নিহতদের স্বজদের মধ্যে আর্থিক সহায়তা

গত দুদিনে টাঙ্গাইলের নাগরপুরে পৃথক দুটি মর্মান্তিক সড়ক দুর্ঘটনায় নিহতদের পরিবারের মাঝে টাঙ্গাইল জেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে নগদ আর্থিক সহায়তা প্রদান করা হয়েছে।
শনিবার (৫ ডিসেম্বর) সকালে উপজেলার চাষাভাদ্রা গ্রামে নিহতদের বাড়িতে উপস্থিত হয়ে জেলা প্রশাসনের পক্ষে নগদ অর্থ প্রদান করেন অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) আমিনুল ইসলাম। এ সময় উপস্থিত ছিলেন, নাগরপুর উপজেলার সহকারী কমিশনার (ভূমি) তারিন মসরুর, জেলা ত্রাণ ও পূনর্বাসন কর্মকর্তা দিপিল কুমার সাহা, ভাদ্রা ইউপি চেয়ারম্যান হাবিবুর রহমান হাবিব।

অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) আমিনুল ইসলাম শোকসন্তপ্ত পরিবারের প্রতি সমবেদনা জানান। সেই সাথে দুর্ঘটনায় ক্ষতিগ্রস্ত পরিবারের সদস্যদের প্রধানমন্ত্রীর সামাজিক সুরক্ষা কার্যক্রমের ( বিধবা ভাতা ও ভিজিডি ইত্যাদি) আওতায় নিয়ে আসার জন্য নাগরপুর উপজেলা প্রশাসনকে নির্দেশনা প্রদান করেন।

নাগরপুর উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) তারিন মসরুর বলেন, একটি সড়ক দুর্ঘটনা, সারা জীবনের কান্না। আর সেই দুর্ঘটনায় একই পরিবারের ৫ জনের মৃত্যু হলে পরিবারের অন্যদের বেঁচে থাকার অবলম্বন বলে কিছুই থাকে না। নাগরপুর উপজেলার চাষাভাদ্রা গ্রামের ঝর্না বৈদ্য তেমনি এক মর্মান্তিক সড়ক দুর্ঘটনায় স্বামী সন্তান পুত্রবধূ নাতনি ও শাশুড়ি হারিয়ে আজ দিশেহারা। পরে শনিবার সকালের সড়ক দুর্ঘটনায় আহতদের খোজ খবর নিতে নাগরপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে যান।

উল্লেখ্য, শুক্রবার দুপুরে নাগরপুর উপজেলার চাষাভাদ্রা গ্রামের একই পরিবারের ৬জন সড়ক দূর্ঘটনায় নিহত হন এবং শনিবার সকালে উপজেলার ফায়ার সার্ভিস ষ্টেশনের সামনে অটোরিক্সা ও ট্রলির মুখোমুখি সংঘর্ষে একই গ্রামের অটোরিক্সা চালক সেন্টু নিহত হন।

সংবাদটি ভালো লাগলে শেয়ার করুন