শনিবার, ১৫ মে ২০২১, ০৮:৩২ পূর্বাহ্ন

বিজ্ঞপ্তিঃ
দিনাজপুর থেকে প্রকাশিত সরকারি মিডিয়া তালিকাভুক্ত দৈনিক খবর একদিন পএিকার জন্য খানসামা, হাকিমপুর, ঘোড়াঘাট ও চিরিরবন্দরের জন্য উপজেলা প্রতিনিধি আবশ্যক। মেইল : khaborekdin2012@gmail.com। মোবাইল : 01714910779
সর্বশেষঃ
দিনাজপুর শহরসহ জেলার ১৩টি উপজেলার প্রায় ৭ হাজার মসজিদে ঈদুল ফিতরের নামাজের জামায়াত অনুষ্ঠিত ফুলবাড়ীতে ঝড়ে উড়ে গেল প্রধান মন্ত্রীর উপহারের ঘরের চাল ফুলবাড়ীতে সড়ক দূর্ঘটনায় চালকসহ আহত ১০ যাত্রী ফুলবাড়ীতে আনসারদের মাঝে ঈদ উপহার বিতরণ বীরগঞ্জে বজ্রপাতে এক নারী নিহত দিনাজপুরে সেন্ট ফিলিপস্ এলামনাই ফোরাম এর উদ্যোগে ঈদ উপহার প্রদান পবিত্র ঈদ-উল-ফিতর উপলক্ষে হুইপ ইকবালুর রহিম এমপির শুভেচ্ছা দিনাজপুরে বিভিন্ন আয়োজনে আন্তর্জাতিক নার্সেস দিবস পালিত ত্যাগের মধ্যে যে আনন্দ আছে ভোগের মধ্যে তা নেই-হুইপ ইকবালুর রহিম বাংলাদেশের উন্নতির পথে বাধা সৃষ্টি করা স্বাধীনতা বিরোধীদের অপপ্রয়াস- এমপি গোপাল

ভুড়ি কমাবে পাকা কলা!

পেটের মেদ নিয়ে সমস্যায় পড়তে হয় না এমন মানুষ নেই বললেই চলে। শরীরের অন্যান্য অংশের মেদ কমলেও অনেক চেষ্টার পরে পেটের মেদ কমে না। তবে খাবার তালিকা মেনে চললে এবং ওয়ার্ক আউট করলে পেটের মেদ কমানো সম্ভব। পেটের মেদ বা ভুড়ি কমায় এমন একটি খাবার পাকাকলা। বলা যায় পেটের মেদ কমাতে পাকা কলার জুড়ি মেলা ভার।

ওয়েট ম্যানেজমেন্ট প্রোগ্রাম অফ আটলান্টা তাদের একটি গবেষণাপত্রে পেটের মেদ কমাতে পাকা কলার ভূমিকার কথা জানিয়েছে। বলা হয়েছে, রোজ দুটো পাকাকলা খেলে ভুঁড়ি কমবেই। কিন্তু কীভাবে? পাকাকলায় রয়েছে প্রচুর পরিমাণে পটাশিয়ম। পটাশিোম শরীরে পানি জমতে দেয় না। অনেক সময়ে নানা অসুস্থতার কারণে, পেটে পানি জমে, পেট ফুলে যায়। রোজ পাকাকলা খাওয়ার অভ্যাস তৈরি করে ফেললে, এই সমস্যা থেকে মুক্তি মিলবে, আপনাকে অনেকটা রোগাও দেখাবে।

পাকাকলা প্রো-বায়োটিক উপাদানে ভরপুর। ফলে অন্ত্রে উপকারী ব্যাকটিরিয়ার পরিমাণ বৃদ্ধি পায়। এই জাতীয় ব্যাকটিরিয়া হজমশক্তি বাড়ায়। আর হজম শক্তি বৃদ্ধি পেলে শরীরে চট করে মেদ জমতে পারে না। ভুঁড়িও গায়েব।

ভিটামিন-বি-তে সমৃদ্ধ পাকাকলা। ভিটামিন-বি শরীরে মেদ জমতে দেয় না। যেসব জিন মেদ জমার জন্য দায়ী, সেগুলোকে সরাসরি প্রভাবিত করে । ফলে ভুঁড়ি অনেকটাই কমে নিয়মিত কলা খাওয়া শুরু করলে দেখবেন, বেশি তেলমশলাযুক্ত খাবার খাওয়ার ইচ্ছে কমে গিয়েছে। ফলে অল্প সময়ের মধ্যেই ভুঁড়ি কমে।

সংবাদটি ভালো লাগলে শেয়ার করুন