খানসামা থানার পরিত্যক্ত জমিতে সবজি চাষে ওসি শেখ কামালের সাফল্য

‘এক ইঞ্চি জমিও যেন অনাবাদি না থাকে’ প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার এমন নির্দেশনার পরেই দিনাজপুরের খানসামা থানার পরিত্যক্ত জমিকে চাষাবাদ উপযোগী করে গড়ে তোলে সবজি চাষে সাফল্য পেয়েছেন প্রকৃতি প্রেমী অফিসার ইনচার্জ (ওসি) শেখ কামাল হোসেন।
গত ১৯ মার্চ খানসামা থানায় যোগদান করেন ওসি শেখ কামাল হোসেন। তিনি এই থানায় যোগদানের পরই থেকেই জীবনের ঝুঁকি নিয়ে করোনা সংক্রমণ প্রতিরোধসহ বিভিন্ন দায়িত্ব পালনের পাশাপাশি থানাকে সাজিয়েছেন শৈল্পিক নৈপুন্যে আর থানায় ফুলের বাগান, ফলজ বাগানসহ থানার পেছনের পতিত জমিতে শীতকালীন সবজির সমারোহ গড়ে তুলে দৃষ্টান্ত স্থাপন করেছেন। সবজি বাগানের ছবি ফেসবুকে ছড়িয়ে পড়লে অনেক মানুষও সবজি বাগান দেখতে আসছেন।

সরেজমিনে দেখা যায়, থানার মূল গেট দিয়ে প্রবেশ করতেই হরেক রকম ফুল ও ফলের গাছ শোভা পাচ্ছে আর থানার মূল ভবনের পিছনে পরিত্যক্ত প্রায় ৫০ শতাংশ জমিতে সবজির বাগানটি করা হয়েছে।
এতে রয়েছে বাঁধাকপি, ফুলকপি, ব্রোকলি, সবুজ কপি, গাঁজর, টমেটো, লেটুস, স্ট্রোবেরি, মরিচ, বেগুন, পুইশাক, ডাটাশাক, ধনেপাতা, পেঁপে, আদাসহ ২০ প্রকার সবজী।এসআই তন্ময় দেবনাথ বলেন, সরকারী দায়িত্ব পালনের পাশাপাশি অবসর সময়ে ওসি কামাল হোসেনসহ অন্য পুলিশ সদস্যরা নিয়মিত সবজি বাগানের পরিচর্যা করছেন। নিজেরাই সবজী চাষ করে খেতে পেরে ভালো লাগছে।

ওসি শেখ কামাল হোসেন বলেন, প্রধানমন্ত্রী বলেছেন ‘এক ইঞ্চি জমিও যেন অনাবাদি না থাকে।’ এমন নির্দেশনার পরপরই পুলিশ সুপার আনোয়ার হোসেনের অনুপ্রেরণায় অন্য পুলিশ সদস্যদের নিয়ে সবজি বাগানটি করা হয়েছে। অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (বীরগঞ্জ সার্কেল) ওয়ারেস হোসেন সার্বিক সহযোগিতা করেছেন। আগামীতে সবজি বাগানের পরিধি আরও বাড়ানো হবে।
এছাড়া পতিত জায়গা ফেলে না রেখে সবজি চাষ করার জন্য সবাইকে অনুরোধ জানান তিনি।

সংবাদটি ভালো লাগলে শেয়ার করুন