কাহারোলে স্বাস্থ্য বিধি উপেক্ষা করে গরু-মহিষের হাট জমজমাট

কাহারোল সংবাদদাতা ॥ কাহারোলে স্বাস্থ্য বিধিকে তোয়াক্কা না করে বসছে গরুর হাট। সারাদেশে সর্বাত্ত্বক লকডাউন শুরু হয়েছে গত ১৪ এপ্রিল’২১ থেকে। কিন্তু এই লকডাউনের মধ্যেই শনিবার উপজেলার কাহারোল হাটটি পশু কেনা বেচার সর্ববৃহৎ হাট বলে সর্বজনের নিকট পরিচিত দীর্ঘদিনের। সরকারের বেঁধে দেওয়া লকডাউন ও স্বাস্থ্য বিধির মাঝেও গতকাল শনিবার জমজমাট ভাবে পশু, গরু, ছাগল, হাঁস-মুরগি, মহিষ সহ অন্যান্য বিক্রয় সামগ্রী ক্রয়-বিক্রয় করা হয়েছে কাহারোল হাটে। এরফলে এ উপজেলায় বাড়তে পারে মহামারী করোনার ঝুঁকি। করোনার ঝুঁকির আশঙ্কা করছে উপজেলার সচেতন নাগরিকরা। এই হাটে গরুর হাট সহ অন্যান্য জিনিসপত্র ক্রয় বিক্রয় করতে আসে দূর-দূরান্ত থেকে সাধারণ জনগন। দেখা গেছে, অনেকেরেই মুখে নেই মাস্ক। এরফলে স্বাস্থ্য বিধি অমান্য করে উত্তরাঞ্চলের সর্ববৃহৎ কাহারোল গরুর হাট বসিয়েছেন হাটের মুনাফা অর্থলোভী ইজারাদার। এই হাটে সকাল থেকে বিকাল পর্যন্ত চলে গরু-ছাগল ও মহিষ বেচা-বিক্রি। গতকাল শনিবার ১৭এপ্রিল দুপুরে উপজেলার প্রাণ কেন্দ্রে অবস্থিত গরুর হাটে গিয়ে দেখা গেছে পশু ক্রেতা-বিক্রেতাদের উপচে পড়া ভীড়। এখানে কোন স্বাস্থ্য বিধি একেবারেই মানা হচ্ছে না। এই অবস্থা হাটের অন্যান্য দোকান গুলোতেও একই অবস্থা মাস্ক ছাড়া ক্রেতারা তাদের কাঙ্খিত পণ্য ক্রয় করতে দেখা যাচ্ছে। অন্যান্য দিন উপজেলা প্রশাসনের কর্মকর্তারা সরকার ঘোষিত লোকডাউন বিষয়ে তৎপরতা দেখালেও শনিবার বড় হাটের দিন কাহারোল হাটে করোনা প্রতিরোধে প্রশাসনিক কোন তৎপরতা লক্ষ্য করা যায়নি। তাই জনগনের মধ্যে দিন দিন দেখা দিয়েছে করোনা আতঙ্ক।

সংবাদটি ভালো লাগলে শেয়ার করুন