দিনাজপুরের পাবতীপুরে প্রতিপক্ষের হামলায় নারীর গর্ভপাত, আহত- ৩, থানায় মামলা দায়ের

পার্বতীপুর সংবাদদাতা ॥ দিনাজপুরের পার্বতীপুরে পূর্ব শত্রুতার জের ধরে প্রতিপক্ষের অতর্কিত হামলায় এক গর্ভবতী নারীর গর্ভপাতসহ আহত হয়েছে ৩ জন। এ ঘটনায় পার্বতীপুর মডেল থানায় ৭ জনকে আসামী করে একটি মামলা দায়ের করা হয়েছে। ঘটনাটি ঘটেছে পার্বতীপুর উপজেলার পলাশবাড়ী ইউনিয়নের দূর্গাপুর বালাপাড়া গ্রামে গত শুক্রবার বিকেল ৫ টায়।
জানা গেছে, পার্বতীপুর উপজেলার পলাশবাড়ী ইউনিয়ের দূর্গাপুর বালাপাড়া গ্রামের মৃত দিলদার হোসেন মন্ডলের পুত্র মেহেদী হাসান (৩৪) ও স্ত্রী আলেমা খাতুন (৩০) এবং তাদের শিশুপুত্র আরহামকে সাথে নিয়ে তাদের ভোগদখলীয় জমিতে রোপনকৃত ভুট্টা ক্ষেত পরিচর্যা করছিল। এসময় একই গ্রামের তাদের প্রতিবেশী ফারুক আহাম্মেদের নেতৃতে কয়েকজন মিলে পূর্ব শত্রুতার জের ধরে পরিকল্পিতভাবে দেশীয় অস্ত্রসস্ত্র নিয়ে তাদের উপর হামলা চালায়। হামলায় ঘটনাস্থলেই মেহেদীর গর্ভবতী স্ত্রী আলেয়া খাতুনের গোপনাঙ্গ দিয়ে রক্তক্ষরন হয়ে গর্ভপাত হওয়ায় গর্ভের সন্তান নষ্ট হয়ে যায়। মারাত্নকভাবে আহত হয় মেহেদী হাসান ও তার শিশু পুত্র আরহাম। গুরুতর আহত অবস্থায় তাদেরকে প্রথমে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়। অবস্থার অবনতি ঘটায় মেহেদীর স্ত্রী আলেমা খাতুনকে দিনাজপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। সেখানে তার গর্ভপাতের ব্যাপারটি নিশ্চিত হয়।
এ ঘটনায় মেহেদী হাসান বাদী হয়ে ফারুক আহাম্মেদসহ ৭ জনকে আসামী করে পার্বতীপুর মডেল থানায় একটি মামলা দায়ের করে।
আজ রবিবার দুপুরে মামলার বাদী মেহেদী হাসান অভিযোগ করে বলেন, মামলা দায়েরের পর থেকে আসামী পক্ষের লোকজনেরা তাকে মামলা তুলে নেওয়ার জন্য নানাভাবে ভয়-ভীতি প্রদর্শনসহ মিথ্য মামলা দায়েরের হুমকী দিচ্ছে। এ ব্যাপারে মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা পার্বতীপুুর মডেল থানা এসআই বিধানের সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি মামলা দায়েরের ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, আসামী পক্ষ তাকে হুমকী ও ভয়-ভীতি প্রদর্শন করলে প্রমাণ স্বাপেক্ষে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

সংবাদটি ভালো লাগলে শেয়ার করুন