শুক্রবার, ১৪ মে ২০২১, ০৯:২৩ পূর্বাহ্ন

বিজ্ঞপ্তিঃ
দিনাজপুর থেকে প্রকাশিত সরকারি মিডিয়া তালিকাভুক্ত দৈনিক খবর একদিন পএিকার জন্য খানসামা, হাকিমপুর, ঘোড়াঘাট ও চিরিরবন্দরের জন্য উপজেলা প্রতিনিধি আবশ্যক। মেইল : khaborekdin2012@gmail.com। মোবাইল : 01714910779
সর্বশেষঃ
ফুলবাড়ীতে ঝড়ে উড়ে গেল প্রধান মন্ত্রীর উপহারের ঘরের চাল ফুলবাড়ীতে সড়ক দূর্ঘটনায় চালকসহ আহত ১০ যাত্রী ফুলবাড়ীতে আনসারদের মাঝে ঈদ উপহার বিতরণ বীরগঞ্জে বজ্রপাতে এক নারী নিহত দিনাজপুরে সেন্ট ফিলিপস্ এলামনাই ফোরাম এর উদ্যোগে ঈদ উপহার প্রদান পবিত্র ঈদ-উল-ফিতর উপলক্ষে হুইপ ইকবালুর রহিম এমপির শুভেচ্ছা দিনাজপুরে বিভিন্ন আয়োজনে আন্তর্জাতিক নার্সেস দিবস পালিত ত্যাগের মধ্যে যে আনন্দ আছে ভোগের মধ্যে তা নেই-হুইপ ইকবালুর রহিম বাংলাদেশের উন্নতির পথে বাধা সৃষ্টি করা স্বাধীনতা বিরোধীদের অপপ্রয়াস- এমপি গোপাল দিনাজপুর সরকারী মহিলা কলেজের উদ্যোগে অস্বচ্ছল জনগোষ্ঠীদের মাঝে খাদ্য সহায়তা প্রদান

বোচাগঞ্জে অবৈধ বালু বিক্রি বন্ধ

বোচাগঞ্জ সংবাদদাতা ॥ দিনাজপুরের বোচাগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী অফিসার ছন্দা পাল এর হস্তক্ষেপে নদী খননের বালু অবৈধভাবে বিক্রি বন্ধ হল।
জানা যায়, দিনাজপুর পানি উন্নয়ন বোর্ড কর্তৃক প্রায় ৪ কোটি টাকা ব্যয়ে বোচাগঞ্জ উপজেলার খননকৃত সোয়া খালের রনগাঁও ইউনিয়নের শ্রীমন্তপুর জালিয়াপাড়া অংশে নদী খনন শেষে নদী সংলগ্ন সেতাবগঞ্জ চিনিকলের নিজম্ব জমিতে উত্তোলনকৃত বালু স্তুুপ রাখা হয়। ঠিকাদার বাবর আলী তার নদী খনন কাজ দেখাশুনার জন্য জনৈক জুলফিকার আলীকে দায়িত্ব দেয়। উক্ত জুলফিকার আলী ও শ্রীমন্তপুর এলাকার ইউপি সদস্য মোঃ মকবুল হোসেন এবং শেখরপুর এলাকার মোঃ সাজ্জাদ হোসেন যোগসাজসে নদী খননের স্তুুপ করা বালু দীর্ঘ এক মাস থেকে অবৈধভাবে বিক্রি করে আসছেন। এখবর বোচাগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী অফিসার ছন্দা পালের কাছে এলে তিনি তড়িৎ গতিতে গতকাল শনিবার দুপুরে সহকারী ভুমি উন্নয়ন কর্মকর্তা ও কানুনগো সহ ঘটনাস্থলে উপস্থিত হন। সেখানে উপস্থিত এলাকাবাসী জানান, উল্লেখিত ব্যক্তিরা অবৈধভাবে দীর্ঘদিন থেকে সরকারি বালু বিক্রি করে আসছেন। উপজেলা নির্বাহী অফিসার আসার খবর সংবাদ পেয়ে অবৈধ বালু বিক্রেতা ও বালু বহন কাজে নিয়োজিত শ্রমিক সহ কয়েকটি ট্রাক্টর দ্রুত ঘটনাস্থল থেকে পালিয়ে যান। এসময় ট্রাক্টরে বালু উত্তোলন কাজে ব্যবহৃত ৯টি বেলচা উদ্ধার করা হয়।উপজেলা নির্বাহী অফিসার ছন্দা পাল এলাকাবাসীকে বলেন, এটি সরকারি সম্পদ কেউ অবৈধভাবে বিক্রি করতে পারে না। আমরা সরকারি বিধি মোতাবেক দ্রুত সময়ের মধ্যে এই বালুর স্তুুপটি খোলা ডাকের মাধ্যমে বিক্রি করে তার অর্থ সরকারি কোষাগারে জমা করবো।এব্যাপারে দিনাজপুর পানি উন্নয়ন বোর্ডের উপ-সহকারী প্রকৌশলী মোঃ নয়ন জানান, সোয়া খাল খননের উত্তোলনকৃত বালু কেউ বিক্রি করতে পারবে না। এটি সরকারি সম্পদ যা জেলা প্রশাসক ও উপজেলা নির্বাহী অফিসারগণ দেখভাল করার দায়িত্বে আছেন। এলকাবাসী বোচাগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী অফিসার ছন্দা পালের তড়িৎ হস্তক্ষেপে অবৈধ বালু বিক্রি বন্ধ হওয়ায় তাকে সাধুবাদ জানান।

সংবাদটি ভালো লাগলে শেয়ার করুন