বোচাগঞ্জে ৩৩৩-এ ফোন করে খাদ্য সহায়তা পেলেন বৃদ্ধা

বোচাগঞ্জ সংবাদদাতা ॥ ৩৩৩-এ ফোন করে খাদ্য সহায়তা পেয়েছেন ডিমলা (৫৫) নামে এক দিনমজুর বিধবা। লকডাউনে কাজ না থাকায় অর্ধাহারে দিন কাটাচ্ছিলেন তিনি। গতকাল মঙ্গলবার দুপুরে দিনাজপুরের বোচাগঞ্জ উপজেলার ২নং ইশানিয়া ইউনিয়নের মালিপাড়া গ্রামের মৃত তারিনি রায়ের স্ত্রী ডিমলার বাসায় খাদ্য সামগ্রী পৌঁছে দেন বোচাগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী অফিসার ছন্দা পাল।
জানা গেছে, ডিমলার তিন মেয়ে ছোট থাকতেই তার স্বামী মারা যান। স্বামীর মৃত্যুর পর জীবিকার তাগিদে যেখানে কাজ পেয়েছেন করেছেন। এভাবে তিন মেয়েকে বিয়েও দিয়েছেন। এই বয়সে এসেও তাকে মাঠে কাজ করতে হয়। কিন্তু করোনার কারণে তার কাজ বন্ধ। এ অবস্থায় প্রতিবেশীর বাড়িতে টেলিভিশনে খবর দেখে খাদ্য সহয়তা চেয়ে ৩৩৩-এ ফোন করেন তিনি। এতে বোচাগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী অফিসার ছন্দা পাল খবর পেয়ে ডিমলার বাসায় খাদ্য সামগ্রী নিয়ে হাজির হন।
খাদ্য সামগ্রী পেয়ে ডিমলা বলেন, কয়েকদিন ধরি খুব কষ্টত আছু। ঠিক মত চুলা জ্বালাবা পারছু না। কয়দিন দিন ধরি কাজকাম বন্ধ আছে। কুনো কামাই নাই বাহে। এইতনে টিভিত দেখি ৩৩৩ কল দিছুনু। ওরা ফির মর কষ্টের কাথা গুলা শুনিলি। মুই খুব খুশি হইছু যে মক তরা কাবার দিবা আইছেন।
বোচাগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী অফিসার ছন্দা পাল বলেন, ৩৩৩ ফোন দিয়ে খাদ্য সহায়তা চেয়েছিলেন ডিমলা। তার বাড়িতে খাবার না থাকায় তাকে আমরা খাদ্য সহায়তা দিয়েছি। এই উপজেলায় ৩৩৩ ফোন করে খাদ্য সহায়তা চাইলে সবার বাড়ি গিয়ে যাচাই বাছাই করে খাদ্য সহায়তা দেওয়া হবে।

সংবাদটি ভালো লাগলে শেয়ার করুন