শনিবার, ১৫ মে ২০২১, ০৭:৫৮ পূর্বাহ্ন

বিজ্ঞপ্তিঃ
দিনাজপুর থেকে প্রকাশিত সরকারি মিডিয়া তালিকাভুক্ত দৈনিক খবর একদিন পএিকার জন্য খানসামা, হাকিমপুর, ঘোড়াঘাট ও চিরিরবন্দরের জন্য উপজেলা প্রতিনিধি আবশ্যক। মেইল : khaborekdin2012@gmail.com। মোবাইল : 01714910779
সর্বশেষঃ
দিনাজপুর শহরসহ জেলার ১৩টি উপজেলার প্রায় ৭ হাজার মসজিদে ঈদুল ফিতরের নামাজের জামায়াত অনুষ্ঠিত ফুলবাড়ীতে ঝড়ে উড়ে গেল প্রধান মন্ত্রীর উপহারের ঘরের চাল ফুলবাড়ীতে সড়ক দূর্ঘটনায় চালকসহ আহত ১০ যাত্রী ফুলবাড়ীতে আনসারদের মাঝে ঈদ উপহার বিতরণ বীরগঞ্জে বজ্রপাতে এক নারী নিহত দিনাজপুরে সেন্ট ফিলিপস্ এলামনাই ফোরাম এর উদ্যোগে ঈদ উপহার প্রদান পবিত্র ঈদ-উল-ফিতর উপলক্ষে হুইপ ইকবালুর রহিম এমপির শুভেচ্ছা দিনাজপুরে বিভিন্ন আয়োজনে আন্তর্জাতিক নার্সেস দিবস পালিত ত্যাগের মধ্যে যে আনন্দ আছে ভোগের মধ্যে তা নেই-হুইপ ইকবালুর রহিম বাংলাদেশের উন্নতির পথে বাধা সৃষ্টি করা স্বাধীনতা বিরোধীদের অপপ্রয়াস- এমপি গোপাল

দিনাজপুরে জলাতঙ্ক নির্মূলে কুকুরকে টিকাদান কার্যক্রমের অবহিতকরণ সভা অনুষ্ঠিত

স্টাফ রিপোর্টার ॥ বাংলাদেশ থেকে জলাতঙ্ক নির্মূলের লক্ষ্যে ব্যাপকহারে কুকুরকে টিকাদান (এমডিভি) কার্যক্রম-২০২১ উপলক্ষে দিনাজপুর সদর উপজেলা অবহিতকরণ সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে।
গতকাল সোমবার সকাল ১১টায় দিনাজপুর সদর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স সভা কক্ষে কুকুরের দ্বিতীয় ডোজ টিকাদান প্রদান উপলক্ষে সদর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের আয়োজনে এবং জাতীয় জলাতঙ্ক নির্মূল কর্মসূচী, রোগ নিয়ন্ত্রণ শাখা, সিডিসি, স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের সহযোগিতায় এই অবহিতকরণ সভা অনুষ্ঠিত হয়।
অবহিতকরণ সভায় সভাপতির বক্তব্যে দিনাজপুরের সিভিল সার্জন ডাঃ মোঃ আব্দুল কুদ্দুছ বলেন, জলাতঙ্ক রোগ মূলত কুকুরের কামড় বা আচঁরের মাধ্যমে ছড়ায়। এছাড়া বিড়াল, শেয়াল, বেজি, বানরের কামড় বা আচঁরের মাধ্যমেও এ রোগ ছড়াতে পারে। বাংলাদেশে প্রতি বছর প্রায় ৫-৬ লক্ষ মানুষ কুকুর, বেড়াল, শেয়ালের কাপড় বা আচঁরের শিকার হয়ে থাকে যাদের মধ্যে বেশির ভাগই শিশু। জলাতঙ্ক ভাইরাসজনিত একটি ভয়ংকর রোগ,যাতে মৃত্যু অনিবার্য। বিশ্বে প্রতি বছর এই মরনব্যাধিতে প্রায় ৬০ হাজার মানুষ আক্রান্ত হয়ে মারা যায়।
সিভিল সার্জন ডাঃ মোঃ আব্দুল কুদ্দুছ আরো বলেন, কুকুর আমাদের পরিবেশের ভারসাম্য রক্ষা করে, তাই কুকুরকে মারা যাবে না। দেশকে জলাতঙ্কমুক্ত করার লক্ষ্যে বর্তমানে টিকাদানের মাধ্যমে জলাতঙ্ক নির্মূল কর্মসূচী বাস্তবায়ন করা হচ্ছে। এই কর্মসূচী বিষয়ে সাধারণ মানুষকে সচেতন করতেই আজকের অবহিতরণ সভা। আগামী ৫ দিনব্যাপাী এই টিকাদান কর্মসূচী পালন করা হবে। এই কর্মসূচী সফল করতে তিনি স্থানীয় জনপ্রতিনিধি, প্রশাসন, পুলিশ বিভাগ, স্বাস্থ্য বিভাগ, সাংবাদিকসহ সমাজের সর্বস্তরের মানুষের সার্বিক সহযোগিতা কামনা করেন।
অবহিতকরণ সভায় সম্মানিত অতিথি হিসেবে আলোচনা করেন দিনাজপুর পৌরসভার মেয়র সৈয়দ জাহাঙ্গীর আলম, দিনাজপুর সদর উপজেলা নির্বাহী অফিসার এসএইচএম মাগফুরুল হাসান আব্বাসী, সদর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান মোঃ ইমদাদ সরকার, জেলা প্রাণি সম্পদ কর্মকর্তা ডাঃ মোঃ শাহিনুর আলম ও সদর উপজেলা প্রাণি সম্পদ কর্মকর্তা ডাঃ আব্দুর রহিম।
সভায় স্বাগত বক্তব্য রাখেন সদর উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডাঃ আরোজ উল্লাহ। বিষয়বস্তু নিয়ে বিস্তারিত আলোচনা করেন ও বিভিন্ন প্রশ্নের উত্তর দেন অনুষ্ঠানের মুখ্য আলোচক রোগ নিয়ন্ত্রণ শাখা, স্বাস্থ্য অধিদপ্তর, মহাখালী ঢাকার ডিস্ট্রিক কো-অর্ডিনেটর মোঃ নাদিম মাহমুদ।
অবহিতকরণ সভায় কমলপুর ইউপি চেয়ারম্যান মাজেদুর রহমান জুয়েল, ফাজিলপুর ইউপি চেয়ারম্যান মোঃ সিরাজুল ইসলাম, আস্করপুর ইউপি চেয়ারম্যান মোঃ জিয়াউর রহমান জিয়া, চেহেলগাজী ইউনিয়নের ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান আমির হোসেন, শশরা ইউপি চেয়ারম্যান মোঃ রফিকুল ইসলাম, শেখপুর ইউপি চেয়ারম্যান মোঃ মমিনুল ইসলাম, সুন্দরবন ইউপি চেয়ারম্যান অশোক কুমার রায়সহ স্থানীয় জনপ্রতিনিধি, স্বাস্থ্য বিভাগের প্রতিনিধি, জিও-এনজিও প্রতিনিধি, সাংবাদিকবৃন্দ অংশগ্রহণ করেন।

সংবাদটি ভালো লাগলে শেয়ার করুন