দিনাজপুরে করোনায় নতুন আরো ২৬৭ জনসহ মোট আক্রান্ত ৯৩৫৪ জন \ নতুন আরো দুইজনসহ মোট মৃত্যু ১৮১ জন

দিনাজপুর প্রতিনিধি \ দিনাজপুরে গত ২৪ ঘন্টায় আরো ২৬৭ জন করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন। এটি এ যাবতকালের দ্বিতীয় সর্বোচ্চ আক্রান্তের সংখ্যা। এর আগে গত ২৪ জুন ৪৫৮ আক্রান্ত হয়েছিলেন। এ নিয়ে জেলায় এ পর্যন্তÍ ৯৩৫৪ জন আক্রান্ত হয়েছেন। আর গত ২৪ ঘন্টায় নতুন আরো দুইজনের মৃত্যু হয়েছে। এ নিয়ে এখন পর্যন্ত জেলায় ১৮১ জনের মৃত্যু হলো। এছাড়া গত ২৪ ঘন্টায় ১০৯ জনসহ এ পর্যন্ত ৬৫২৭ জন সুস্থ হয়েছেন। তবে আক্রান্ত ৯৩৫৪ জনের মধ্যে ৬৫২৭ জন সুস্থ ও ১৮১ জনের মৃত্যু হওয়ায় বর্তমানে দিনাজপুর জেলায় করোনায় আক্রান্ত রোগির সংখ্যা রয়েছে ২৬৪৬ জন। যা আগের দিন ছিল ২৪৯০ জন।
দিনাজপুর সিভিল সার্জন ডাঃ মোঃ আব্দুল কুদ্দুছ জানান, সোমবার (৫ জুলাই) সকাল ৯টা পর্যন্ত গত ২৪ ঘন্টায় ৮৪১টি নমুনা পরীক্ষা করা হয়েছে। এর মধ্যে ২৬৭ জনের দেহে করোনা পজিটিভ শনাক্ত হয়েছে। এ নিয়ে জেলায় এ পর্যন্ত করোনায় আক্রান্ত রোগির সংখ্যা পৌঁছেছে ৯৩৫৪ জনে। নতুন আক্রান্ত ২৬৭ জনের মধ্যে সদর উপজেলাতে ১৮৭ জন। এছাড়া বিরলে ১৪ জন, বিরামপুরে একজন, বীরগঞ্জে ১১ জন, চিরিরবন্দরে ১২ জন, ফুলবাড়ীতে ২০ জন, কাহারোলে ৮ জন, নবাবগঞ্জে দুইজন ও পার্বতীপুর উপজেলায় ১২ জন। সোমবার আক্রান্তের হার ছিল ৩১ দশমিক ৭৪ শতাংশ।
গত ২৪ ঘন্টায় নতুন আরো ১০৯ জনসহ এ পর্যন্ত ৬৫২৭ জন সুস্থ হয়েছেন। আর ২৪ ঘন্টায় বোচাগঞ্জে একজন ও কাহারোল উপজেলায় একজনসহ জেলায় এ পর্যন্ত ১৮১ জনের মৃত্যু হয়েছে।
দিনাজপুরে মোট আক্রান্ত ৯৩৫৪ জনের মধ্যে সদর উপজেলায় সবচেয়ে বেশী ৫৪৩৬ জন। এছাড়া বিরলে ৫৩২, বিরামপুরে ৫৩৩ জন, বীরগঞ্জে ২৩৮ জন, বোচাগঞ্জে ৩১৩ জন, চিরিরবন্দরে ৩১৮ জন, ফুলবাড়ীতে ৩৮৮ জন, ঘোড়াঘাটে ৯৮ জন, হাকিমপুরে ২৩৬ জন, কাহারোলে ২১৫ জন, খানসামায় ১৪৭ জন, নবাবগঞ্জে ২৫৯ ও পার্বতীপুর উপজেলায় ৬৪১ জন।
মোট মৃত ১৮১ জনের মধ্যে সদর উপজেলায় ৯৬, বিরলে ১০ জন, বিরামপুরে ১০ জন, বীরগঞ্জে ৬ জন, বোচাগঞ্জে ৬ জন, চিরিরবন্দরে ১৩ জন, ফুলবাড়ীতে ১০ জন, হাকিমপুরে ৩ জন, কাহারোলে ৬ জন, খানসামায় ৫ জন, নবাবগঞ্জে ৪ জন ও পার্বতীপুর উপজেলায় ১২ জন। তবে জেলার ১৩টি উপজেলার মধ্যে ঘোড়াঘাট উপজেলায় এখন পর্যন্ত কারো মৃত্যু হয়নি।
সিভিল সার্জন জানান, গত ২৪ ঘন্টায় ৪০৪টিসহ এ পর্যন্ত ৫৩২৩৪টি নমুনা সংগ্রহ করা হয়েছে। আর গত ২৪ ঘন্টায় মোট ৮৪১টসহ (আরটি পিসিআর-৬৩২টি, রেট-২০৯টি) এ পর্যন্ত ৫০৪৩৪টি নমুনা পরীক্ষা করা হয়েছে। এ ছাড়া গত ২৪ ঘন্টায় ৭০৪ জনসহ ৪৩৮৮০ জন কোয়ারেন্টাইন নেয়া হয়েছে এবং ১৩০ জনসহ ৩৬৫৫০ জন কোয়ারেন্টাইন হতে ছাড় পেয়েছেন। বর্তমানে হোম আইসোলেশনে রয়েছেন ২৫৪৩ জন। আর বর্তমানের হাসপাতালে ভর্তি রয়েছেন ১৮৮ জন। দিনাজপুর এম আব্দুর রহিম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি রয়েছেন ১২৯ জন, দিনাজপুর জেনারেল হাসপাতালে ২৮ জন ও উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সমূহে রয়েছে ৩১ জন। তবে হাসপাতালে ভর্তি হওয়া করোনার উপসর্গযুক্ত আক্রান্ত ১০৩ জন ও সন্দেহভাজন ৮৫ জন।
সিভিল সার্জন ডাঃ মোঃ আব্দুল কুদ্দুছ আরো জানান, দিনাজপুর জেলায় বর্তমানে মজুতকৃত অক্সিজেন সিলিন্ডারের সংখ্যা ১২৮৫টি, হাই ফ্লো ন্যাজাল ক্যানুলা’র সংখ্যা ১৯টি ও অক্সিজেন কনসেনট্রেটরের সংখ্যা ২৮টি।
এদিকে কঠোর লকডাউন বাস্তবায়নে জেলা প্রশাসন, সেনাবাহিনী, পুলিশ, র‌্যাব, বিজিবি, আনসারসহ অন্যান্য আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্য ও স্বেচ্ছাসেবকবৃন্দ মাঠে তৎপর রয়েছে।
উল্লেখ্য, ১ জুলাই বৃহস্পতিবার সকাল ৬টা থেকে সারা দেশের ন্যায় দিনাজপুরে কঠোর লকডাউন শুরু হয়েছে। আগামী ৭ জুলাই বুধবার রাত ১২টায় এই কঠোর লকডাউন শেষ হবে। এই লকডাউন চলাকালিন সময়ে জরুরী পরিসেবা ছাড়া সকল সরকারী, আধাসরকারী, স্বায়ত্বশাসিত ও বেসরকারী অফিসসমূহ, সকল ধরনের গনপরিবহন ও দোকানপাট বন্ধ থাকবে। তবে কাঁচাবাজার ও নিত্যপ্রয়োজনীয় দ্রব্যাদি সকাল ৯টায় থেকে বিকেল ৫টায পর্যন্ত উন্মুক্ত স্থানে স্বাস্থ্যবিধি মেনে ক্রয়-বিক্রয় করতে পারবে।

সংবাদটি ভালো লাগলে শেয়ার করুন