করোনাকালে চিকিৎসক ও স্বাস্থ্যকর্মীদের বীরত্বপুর্ন ভুমিকা জাতি কৃতজ্ঞচিত্তে স্বরন করবে — হুইপ ইকবালুর রহিম এমপি

স্টাফ রিপোর্টার ॥ জাতীয় সংসদের হুইপ ইকবালুর রহিম এমপি চিকিৎসক ও স্বাস্থ্যকর্মীরা এ দেশের করোনা যোদ্ধা (বীর) হয়ে থাকবে উল্লেখ করে বলেন, চিকিৎসক ও স্বাস্থ্যকর্মীরা সাহসী ভুমিকা পালন করছে। করোনা যোদ্ধা চিকিৎসকরা করোনার এই মুহুর্তে নিজের জীবনের ঝুকি নিয়ে মানুষের করে যাচ্ছেন। ইতিমধ্যে চিকিৎসা সেবা দিতে গিয়ে অনেক চিকিৎসক, নার্স, স্বাস্থ্যসেবা কর্মী করোনায় আক্রান্ত হয়ে মৃতুবরন করেছেন। তাদের আত্মার শান্তি কামনা করি। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা এই সমস্ত স্বাস্থ্যসেবা পরিবারদের আর্থিক সহযোগিতা করেছেন। এ জন্য প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার প্রতি কৃতজ্ঞতা জানান। তিনি বলেন, করোনা কালে এবারের বাজেটে স্বাস্থ্যখাতে সর্বোচ্চ বরাদ্দ দেয়া হয়েছে এবং করোনা প্রতিরোধে সকল জনগনকে করোনা পরীক্ষা ও ভ্যাকসিনের প্রদানের জন্য বিশেষ বরাদ্দ রাখা হয়েছে। করোনাকালীন সময় লকডাউনের কারনে কর্মহীন হয়ে পড়া বেকার, অসহায় ও দুস্থ্য মানুষদের খাদ্য উপহার দিচ্ছেন বঙ্গবন্ধু কন্যা শেখ হাসিনা। জনগনের সামাজিক নিরাপত্তা নিশ্চিত করার জন্যে বিভিন্ন প্রণোদনা কার্যক্রম চালু করেছেন। জনগনের শুধু দায়িত্ব সচেতন হয়ে স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলা। হুইপ এম আব্দুর রহিম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে করোনা রোগীসহ সকল ধরনের রোগী সঠিক ভাবে চিকিৎসা সেবা পায় সে দিকে চিকিৎসক, ইন্টার্র্ণী চিকিৎসক, নার্স ও স্বাস্থ্যকর্মীদের রোগীদের প্রতি আরও যত্নশীল হওয়ার আহবান জানান। হাসপাতালে চিকিৎসা নিতে এসে কোন রোগী যেন হয়রানীর শিকার না হয়, সেদিকে চিকিৎসাসেবা কর্মীদের দৃষ্টি দেয়ার আহবান জানান। হাসপাতালে কোন দুর্ণীতি ও অনিয়ম সহ্য করা হবে না।
তিনি গতকাল নিজ হাতে অনিয়ম ও দুর্নীতির কারনে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষে পরামর্শে ৩জন কর্মচারীকে পুলিশের কাছে সপর্দ করেন এবং ঘটনা তদন্ত করে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়ার নির্দেশ দেন।
এছাড়াও করোনা শয্যা বৃদ্ধির জন্য এম আব্দুর রহিম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের নতুন ভবনের নির্মান কাজ পরিদর্শন করেন।
শনিবার বিকেলে দিনাজপুর এম আব্দুর রহিম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে সম্মেলন কক্ষে ইন্টার্ণ ডক্টরস এসোসিয়েশন(আইডিএ)’র নতুন কমিটি, স্বাস্থ্যকর্মী ও ছাত্রলীগ নেতাকর্মীদের সাথে করোনা পরিস্থিতি নিয়ে মতবিনিময়কালে জাতীয় সংসদের হুইপ ইকবালুর রহিম এমপি এসব কথা বলেন।
এ সময় বক্তব্য রাখেন দিনাজপুর এম আব্দুর রহিম মেডিকেল কলেজ এর ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষ ডাঃ সৈয়দ নাদির হোসেন, হাসপাতালের পরিচালক ডাঃ শামীমা, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার সুজন সরকার, কলেজের সহযোগি অধ্যাপক ডাঃ নুরুজ্জামান, ডাঃ মোমিনুল ইসলাম, শহর আওয়ামীলীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি মোঃ রায়হান কবীর সোহাগ, ডাঃ সাদিক, ডাঃ খায়রুল আলম পিয়াল, কলেজ ছাত্রলীগ নেতা নাসিম, জাকির, আইডিএর সভাপতি আরমান হোসেন প্রমুখ।

সংবাদটি ভালো লাগলে শেয়ার করুন