1. admin@dailykhaborekdin.com : দৈনিক খবর একদিন :
  2. khaborekdin2012@gmail.com : Khabor Ekdin : Khabor Ekdin
শনিবার, ২৯ জানুয়ারী ২০২২, ০৩:৫১ অপরাহ্ন
বিজ্ঞপ্তিঃ
দিনাজপুরের নবাবগঞ্জে গভীর/অগভীর নলকূপ মালিকদের নিয়ে দিনব্যাপী কর্মশালা। ভারতে করোনা নেগেটিভ, হিলি চেকপোস্টে পজিটিভ দিনাজপুরিয়া ইঞ্জিনিয়ার্স অব টেক্সটাইল পরিবারের শীতবস্ত্র বিতরণ দিনাজপুরে লংকাবাংলা ফাউন্ডেশনের বাইসাইকেল বিতরণ ব্রোকলি চাষে লাভবান কৃষক বোচাগঞ্জ উপজেলা প্রেসক্লাবের প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি স্বর্গীয় পরেশ চন্দ্র সরকারের ৭ম মৃত্যুবার্ষিকী উপলক্ষে শীতবস্ত্র বিতরণ দিনাজপুর সদরের ১০ ইউপি নির্বাচনে ৫৭ জন চেয়ারম্যান প্রার্থীসহ ৫৫২ জন প্রার্থীর মনোনয়নপত্র জমা দিনাজপুরে ছাত্রলীগের ৭৪তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উদযাপন ঘোড়াঘাটে গাঁজার গাছ সহ আটক ১ দশমাইলে মিডল্যান্ড ব্যাংকের উদ্যোগে বীরমুক্তিযোদ্ধাদের করোনা সামগ্রী বিতরন

আজ বিশিষ্ট সাংবাদিক ও শিক্ষক মাজেদুর রহমানের ২৫তম মৃত্যুবার্ষিকী

দৈ‌নিক খবর একদিন ডেস্ক
  • সর্বশেষ সংবাদ সোমবার, ২ আগস্ট, ২০২১
  • ২১৯ বার প‌ঠিত

স্টাফ রিপোর্টার : মরহুম সাংবাদিক ও শিক্ষক মাজেদুর রহমান সরকারের ২৫ তম মৃত্যুবার্ষিকী আজ। ১৯৯৭ সালের ২ আগষ্ট তিনি মৃত্যুবরন করেন। তিনি মনে-প্রানে একজন প্রকৃত সমাজসেবী হিসাবে নিজ এলাকার উন্নয়নে অকাতরে কাজ করে গেছেন। ২৫তম মৃত্যু বার্ষিকী উপলক্ষে মরহুমের মালদ্হপট্টিস্থ বাসভবনে দোয়া খায়েরের আয়োজন করা হবে। মরহুম মাজেদুর রহমান সরকার ১৯৪০ সনে দিনাজপুর সদর উপজেলার ৬নং আউলিয়াপুর ইউনিয়নের সৈয়দপুর (শিকদারগঞ্জ) গ্রামের সম্ভ্রান্ত মুসলিম পরিবারে জন্ম গ্রহন করেন। তিনি ১৯৬৩ সনে রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় থেকে স্নাতক ডিগ্রি অর্জন করেন এবং ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় থেকে এম,এ, ইন এডুকেশন ডিগ্রি লাভ করেন। মহান স্বাধীনতা সংগ্রামে তাঁর পিতা শহীদ হন। স্কুল জীবনে “মিলন সংঘ” নামে একটি যুব সমিতির প্রতিষ্ঠাতা সেক্রেটারী হিসাবে সৈয়দপুর (শিকদারগঞ্জ) গ্রামে তিনি সমাজকর্মের জীবন শুরু করেন। ১৯৬৭ সালে শিকদারগঞ্জ প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রতিষ্ঠাতা সেক্রেটারী হিসাবে তিনি দায়িত্বভার গ্রহন করেন। বাংলাদেশ প্রতিষ্ঠিত হলে ১৯৭২ তার ঐকান্তিক প্রচেষ্টায় প্রাথমিক বিদ্যালয়টি উচ্চ বালিকা বিদ্যালয়ে উন্নীত হয় এবং সরকারী অনুমোদন লাভ করে। উল্লেখ্য দিনাজপুর পৌরসভার বাহিরে সমগ্র সদর উপজেলায় প্রথম উচ্চ বালিকা বিদ্যালয় এটি। দিনাজপুর পৌরসভার বাহিরে সেই সুদুর ১৯৭৪ সালে তার সক্রিয় উদ্যোগে সৈয়দপুর (সিকদারগঞ্জ) গ্রামটিতে বিদ্যুৎ ও টেলিফোন সংযোগ স্থাপিত হয়। একই সালে তিনি শিকদারগঞ্জ মৌজাস্থ সত্যপীর পীরপাল ওয়কফ এস্টেটের সেক্রেটারী নির্বাচিত হন এবং বহুমূখী সমাজকল্যান মূলক প্রতিষ্ঠান গড়ে তুলে এলাকার ব্যাপক উন্নয়ন সাধন করেন। এর মধ্যে শিকদারগঞ্জ পশু চিকিৎসা উপকেন্দ্র, ডাকঘর, এলোপ্যাথিক দাতব্য চিকিৎসালয়, হোমিও দাতব্য চিকিৎসালয়, ফ্যামিলি প্লানিং সেন্টার, শিকদারগঞ্জ জামে মসজিদ ও মসজিদ সংলগ্ন দীঘিতে মুসল্লীদের ওজু করার ঘাট নির্মান প্রভৃতি অন্যতম। তিনি ৬নং আউলিয়াপুর ইউনিয়ন পরিষদ ভিত্তিক সাংস্কৃতিক প্রতিষ্ঠান চেরাডাঙ্গী নবীণ মজলিস ও পাবলিক লাইব্রেরীর সাধারন সম্পাদকের দায়িত্ব পালন করেন। তিনি শুধু তার গ্রামের নয় গ্রামের বাহিরেও সমাজ কর্মের হাত সম্প্রসারন করে অন্যান্য সামাজিক কাজ চালিয়ে গেছেন। তিনি যথাক্রমে দিনাজপুর প্রেসক্লাবের সদস্য, উপজেলা আইনশৃঙ্খলা কমিটির সদস্য, বাংলাদেশ পরিবার পরিকল্পনা সমিতির দিনাজপুর জেলা শাখার আজীবন সদস্য, জেলা লায়ন্স ক্লাবের সদস্য ছিলেন। উত্তরবঙ্গের ঐতিহ্যবাহী কেবিএম ডিগ্রী কলেজের গভর্নিং বডির নির্বাচিত সদস্য হিসাবে দায়িত্ব পালন করেন। ১৯৭৩ সালের ইউপি নির্বাচনে বিপুল ভোটে ভাইস চেয়ারম্যান নির্বাচিত হন এবং সুনামের সাথে দায়িত্ব পালন করেন। সাংবাদিকতা ও সাহিত্যের প্রতি ছিল গভীর আগ্রহ। তিনি ঢাকা থেকে প্রকাশিত অধুনালুপ্ত জাতীয় দৈনিক পূর্বদেশ এর জেলা প্রতিনিধি, দৈনিক জনপদ এর জেলা প্রতিনিধি, ইউ,এন,বি সংবাদ সংস্থর জেলা সংবাদদাতা, সাপ্তাহিক ফসলের জেলা প্রতিনিধি, সাপ্তাহিক চিত্রালির জেলা সংবাদদাতা, সাপ্তাহিক জনতার জেলা প্রতিনিধি ও সাপ্তাহিক জনকন্ঠের জেলা সংবাদদাতা হিসাবে কাজ করেন। দিনাজপুরের দৈনিক উত্তরায় তিনি দীর্ঘকাল ফিচার লেখক ছিলেন, সাপ্তাহিক পূনর্ভবার নির্বাহী সম্পাদকের দায়িত্ব পালন করেন, এছাড়াও দৈনিক উত্তরবাংলা, আজকের প্রতিভাতে সাংবাদিক হিসাবে কাজ করেন। উল্লেখ্য তিনি দি এশিয়ান এজ দিনাজপুর প্রতিনিধি ও দৈনিক “খবর একদিন” পত্রিকার সম্পাদক ও প্রকাশক মোঃ মোফাসিরুল রাশেদ এবং বিজয় টিভি দিনাজপুর জেলা প্রতিনিধি ও দিনাজপুর বার্তা২৪.কম এর প্রকাশক ও সম্পাদক মোফাচিছলুল মাজেদ এর পিতা। মরহুম মাজেদুর রহমান ১৯৬১ সানে ঠাকুরগাও জেলার ইসলামিয়া জুনিয়র হাইস্কুলে প্রধান শিক্ষক হিসেবে তার শিক্ষকতা জীবন শুরু করেন, ১৯৬৩ সালে ঘুঘুডাঙ্গা উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক হিসাবে দায়িত্বভার গ্রহন করেন, পরবর্তীতে ১৯৬৭ সালে তিনি পৌরসভা উচ্চ বিদ্যালয়ে (বাংলা স্কুল) সিনিয়র সহকারী শিক্ষক হিসাবে যোগদান করেন এবং সর্বশেষ জুবলী হাই স্কুলের শিক্ষক হিসাবে তিনি কর্মরত থাকা অবস্থায় মৃত্যু বরন করেন।

সংবাদটি ভালো লাগলে শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

সকল সংবাদ
Theme Designed BY Kh Raad ( Frilix Group )
%d bloggers like this: