1. admin@dailykhaborekdin.com : দৈনিক খবর একদিন :
  2. khaborekdin2012@gmail.com : Khabor Ekdin : Khabor Ekdin
রবিবার, ২৬ জুন ২০২২, ০৬:০৫ অপরাহ্ন
বিজ্ঞপ্তিঃ
মালদহপট্টি ব্যবসায়ী সমিতির সাধারণ সভা ও নির্বাচন অনুষ্ঠিত ফুলবাড়ী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে জনবল সংকট বিশেষজ্ঞ চিবিৎসকসহ ৫৭টি পদ শূন্য চিকিৎসকের অভাবে চালু হয়নি অপারেশন থিয়েটার। দেবীগঞ্জে অগ্নি নির্বাপণ মহড়া প্রধানমন্ত্রীকে হত্যার হুমকির প্রতিবাদে মৎস্যজীবী লীগের পথসভা অনুষ্ঠিত দেবীগঞ্জে আনসার ও গ্রাম প্রতিরক্ষা বাহিনীর সমাবেশ বিনোদনগর ইউনিয়নে দিনাজপুর জেলা তথ্য অফিসের দিনব্যাপী ওরিয়েন্টেশন কর্মশালা Jahed Ul Islam is the name of inspiration for the young generation MD Mizanur Rahman Mia is a talented young Bangladeshi singer, Digital Marketer and musical artist. ফুলবাড়ীতে মাস্টার্স পরিক্ষার্থীর ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার ৭নং বিজোড়া ইউপি চেয়ারম্যান পদে মো : এরশাদুজ্জামান মোল্লা’র মনোনয়ন দাখিল

কর্মস্থলে যোগদান ও বকেয়া বেতনের দাবীতে টানা এক মাস ব্যাপী বড়পুকুরিয়া কয়লা খনি শ্রমিকদের আন্দোলন অব্যাহত।

দৈ‌নিক খবর একদিন ডেস্ক
  • সর্বশেষ সংবাদ বৃহস্পতিবার, ১২ মে, ২০২২
  • ২১ বার প‌ঠিত

মেহেদী হাসান, ফুলবাড়ী (দিনাজপুর) প্রতিনিধি : স্ব-স্ব কর্মস্থলে যোগদানসহ করোনা কালীন বকেয়া বেতন ভাতার দাবিতে দেশের একমাত্র উৎপাদনশীল দিনাজপুরের বড়পুকুরিয়া কয়লা খনির চীনা ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠান সিএমসি-এক্সএমসি কনসোর্টিয়ামের অধিনে কর্মরত দেশি শ্রমিকরা টানা এক মাস ব্যাপী পরিবার পরিজন নিয়ে অবস্থান কর্মসূচী পালন করে আসছে।
পূর্বঘোষিত কর্মসূচীর অংশ হিসেবে আজ সকাল ১১টায় বড়পুকুরিয়া কয়লা খনি গেট থেকে একটি বিক্ষোভ মিছিল বের করা হয়। মিছিলটি কয়লা খনি বাজার প্রদক্ষিণ করে খনি গেটে এসে শেষ হয়। পরে সেখানে অবস্থান কর্মসূচী পালন করা হয়। এসময় সংক্ষিপ্ত সমাবেশে বক্তব্য রাখেন বড়পুকুরিয়া কয়লা খনি শ্রমিক কর্মচারী ইউনিয়নের সভাপতি রবিউল ইসলাম রবি, সাধারণ সম্পাদক আবু সুফিয়ান, সাবেক সাধারণ সম্পাদক নূর ইসলাম, শ্রমিকের স্ত্রী খুকু মনি, শ্রমিক নেতা জাকির হোসেন, এরশাদ আলী ও এহছানুল হক সোহাগ প্রমুখ।
এসময় বক্তরা বলেন, করোনা পরবর্তী সময়ে সরকারের ঘোষণা অনুযায়ী সকল সরকারি-বেসরকারি ও স্বায়ত্ব শাসিত প্রতিষ্ঠান পূর্বের মতোই চালু হলেও অজ্ঞাত কারণে বড়পুকুরিয়া কয়লা খনিতে আমাদের স্ব-স্ব কর্মস্থলে খনি কর্তৃপক্ষ যোগদানের কোন পদক্ষেপ গ্রহণ করেননি। একই সাথে খনি কর্তৃপক্ষ ঘোষিত করোনা কালিন বেতন ভাতা না পাওয়ায় আমরা পরিবার পরিজন নিয়ে মানবেতর জীবন যাপন করছি।
তারা আরও বলেন, প্রায় দুইবছর আগে বৈশ্বিক করোনা মহামারির কারণে কর্মরত ১১৪৭ জন বাংলাদেশি শ্রমিককে বাধ্যতামূলক ছুটি দেওয়া হয়। এরপর চলতি বছরের জানুয়ারিতে ৪০০ জন শ্রমিককে খনির ভেতরে থেকে কাজ করার শর্তে ফেরত নেয়। বাকি ৭৪৭ জনকে কাজে যোগদানের সুযোগ না দিয়ে বেতন বন্ধ রাখা হয়েছে। পবিত্র ঈদুল ফেতরের সময় খনি অভ্যান্তরে যে সকল শ্রমিক অবস্থান করছিলেন তাদেরও ছুটি দেয়া হয়েছে।
বক্তারা আরও বলেন, ছুটি দেওয়ার সময় কথা ছিল শ্রমিকদের প্রতি মাসে ৪৫০০ টাকা করে দেওয়ার কথা ছিল। কিন্তু গত ৯ মাস ধরে তা আর দেওয়া হচ্ছে না। অবলম্বে এসব শ্রমিকদের কাজে যোগদানসহ বকেয়া পাওনা বেতন-ভাতা প্রদানের দাবী জানান।
এদিকে গত ১০ মে খনির অভ্যান্তরে মনমেলা সভা কক্ষে আন্দোলনকারী শ্রমিকদের ২০ সদস্যের একটি প্রতিনিধি দলের সাথে খনি কর্তৃপক্ষ এক বৈঠকে বসেন। সেখানে আন্দলনকালী শ্রমিকদের মধ্য থেকে ৬০০ জনকে কাজে যোগদানের প্রস্তাব দেন কর্তৃপক্ষ। কিন্তু শ্রমিকরা করোনা কালিন ৯ মাসের বকেয়া ভাতাসহ সকল শ্রমিকদের স্ব স্ব কাজে যোগদানের দাবি জানিয়ে ওই আলোচনা প্রত্যাখ্যান করে চলমান কর্মসূচী অব্যাহত রেখেছেন।
বিষয়টি নিয়ে বড়পুকুরিয়া কোল মাইনিং কোম্পানী লিমিটেড এর ব্যবস্থাপনা পরিচালক (এমডি) প্রকৌশলী মো. কামরুজ্জামান খান এর সাথে মুঠো ফোনে জানান, চীনা ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠান সিএমসি-এক্সএমসি কনসোর্টিয়ামের এর সাথে কথা বলে প্রথমে ৪০০ জন শ্রমিককে কাজে যোগদান এবং পরে আরও ২০০ শ্রমিকসহ মোট ৬০০ জন শ্রমিককে কাজে যোগদানের বিষয়ে প্রস্তাব দেয়া হয়। কিন্তু শ্রমিকরা তা প্রত্যাখ্যান করে খনি গেট উন্মুক্ত করে দেয়ার দাবী জানান।
এর আগে এসব দাবী নিয়ে বড়পুকুরিয়া কয়লা খনি শ্রমিকরা গত ১১ এপ্রিল খনি কর্তৃপক্ষের কাছে দুই দফা দাবী নিয়ে একটি স্মারক লিপি প্রদান করেন। ওই দিন ঘোষিত কর্মসূচি অনুযায়ী এই বিক্ষোভ ও অবস্থান কর্মসূচি পালন করে আসছেন তারা।

সংবাদটি ভালো লাগলে শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published.

সকল সংবাদ
Theme Designed BY Kh Raad ( Frilix Group )