ঢাকারবিবার , ৪ ফেব্রুয়ারি ২০২৪
  1. আইন-আদালত
  2. আন্তর্জাতিক
  3. আবহাওয়া
  4. কুড়িগ্রাম
  5. কৃষি
  6. ক্যাম্পাস
  7. ক্রিকেট
  8. খেলা
  9. গাইবান্ধা
  10. চাকরির খবর
  11. জাতীয়
  12. ঠাকুরগাঁও
  13. তথ্যপ্রযুক্তি
  14. দিনাজপুর
  15. নীলফামারী
আজকের সর্বশেষ সবখবর

বিজ্ঞান-প্রযুক্তিতে প্রধানমন্ত্রীর অবদানের কারণে মেধাবীরা দেশে ফিরছেন: তাপস

একদিন ডেস্ক
ফেব্রুয়ারি ৪, ২০২৪ ৬:০০ পূর্বাহ্ণ
Link Copied!

ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের (ডিএসসিসি) মেয়র ব্যারিস্টার শেখ ফজলে নূর তাপস বলেছেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার আগে এ দেশে বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি গবেষণায় উল্লেখযোগ্য বাজেট বরাদ্দ দেওয়া হতো না। কিন্তু ২০০৯ সালের পর এই খাতকে সবচেয়ে বেশি অগ্রাধিকার দিয়েছেন তিনি। শনিবার (৩ ফেব্রুয়ারি) বিকালে রাজধানীর বিসিএসআইআর (সায়েন্স ল্যাব) আয়োজিত ‘বিজ্ঞান ও শিল্প-প্রযুক্তি মেলা-২০২৪’-এর সমাপনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ কথা বলেন।

মেয়র শেখ তাপস বলেন, প্রধানমন্ত্রীর শেখ হাসিনা চতুর্থ শিল্প বিপ্লবের এই যুগে এগিয়ে যেতে আমাদের স্মার্ট বাংলাদেশ বিনির্মাণের রূপকল্প দিয়েছেন। আমাদের যে টেকসই অভীষ্ট লক্ষ্য রয়েছে, সেখানে বিজ্ঞানকে প্রাধান্য দেওয়া হয়েছে।তিনি বলেন, প্রযুক্তির উন্নয়ন ও উদ্ভাবনে গবেষণার কোনও বিকল্প নেই। তাই বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি গবেষণায় আরও বরাদ্দ বাড়াতে হবে এবং আমরা সে লক্ষ্য কাজ করে যাবো।

তিনি বলেন, আপনার দেখেছেন, ২০০৯ থেকে ২০২৪ সালের এই পথচলায় আমাদের মেধাবী সন্তানরা বহির্বিশ্বের অনেক সুযোগ উপেক্ষা করে বাংলাদেশে ফিরে আসছেন। প্রধানমন্ত্রী বিজ্ঞান ও গবেষণায় অবারিত সুযোগ করে দিয়েছেন বলেই তারা দেশে ফিরে আসছেন। তেমনি আজ একজন বক্তা বলেছেন, তিনি সাত বছর আগে দেশে ফিরে এসেছেন এবং দেশের জন্য কাজ করছেন।

অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে সংসদ সদস্য ফেরদৌস আহমেদ বলেন, বিজ্ঞানের অগ্রগতি ও উন্নয়ন ছাড়া কখনও একটি দেশ উন্নত হতে পারে না। সে লক্ষ্যে সরকার বহুমাত্রিক উদ্যোগ গ্রহণ ও বাস্তবায়ন করেছে এবং করে চলেছে। যেহেতু আমাদের একজন প্রযুক্তিসেবী প্রধানমন্ত্রী রয়েছেন, সেহেতু প্রযুক্তির উন্নয়ন ও উদ্ভাবনের মাধ্যমে স্মার্ট বাংলাদেশ বাস্তবায়নে আমাদের মেধাবী শিক্ষার্থীরা এগিয়ে আসবেন বলেই আমি বিশ্বাস করি।

বিসিএসআইআরের চেয়ারম্যান অধ্যাপক ড. মো. আফটাব আলী শেখের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বাংলাদেশ নিরাপদ খাদ্য কর্তৃপক্ষের সদস্য অধ্যাপক ড. মোহাম্মদ শোয়েব এবং শিশু স্বাস্থ্য গবেষণা ফাউন্ডেশনের অনুজীব বিজ্ঞানী ও পরিচালক ড. সেঁজুতি সাহা প্রমুখ বক্তব্য দেন।